বুধবার, ০৫ অগাস্ট ২০২০, ০৭:৩৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জয়পুরহাট জেলা বাসীকে ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে ভাইস চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঠাকুর জয়পুরহাট পৌর বাসীকে পবিত্র ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে মেয়র মোস্তাক জয়পুরহাট জেলা বাসীকে ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে সংবাদপত্র হর্কাস ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক শহিদুল জয়পুরহাটে করোনাভাইরাস রোগে আক্রন্ত হয়ে জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদকের মৃত্যু চার মাস পর রশিদ হত্যা মামলার রহস্য উম্মোচন সিরাজগঞ্জে বাসচাপায় একজন নিহত; গুরুতর আহত দুই জয়পুরহাট পৌর বাসীকে পবিত্র ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে মেয়র মোস্তাক জয়পুরহাট জেলা বাসীকে ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে ভাইস চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঠাকুর করোনা জয় করলেন ইউএনও মহোদয় ও তার পরিবার তাড়াশে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ
মেয়র মোস্তাককে জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দেখতে চাই!

মেয়র মোস্তাককে জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দেখতে চাই!

আহসান হাবীব আরমান,জয়পুুরহাট : জয়পুরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দলীয় মনোনয়ন দিবেন জয়পুরহাটের রূপোকার অভিভাবক জয়পুরহাটের প্রতিটির মানুষের এক কন্ঠের শুরু উত্তর বঙ্গের নেতা বাংলাদেশ আওয়মী লীগের বার বার নির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক ও হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সামছূল আলম দুদু,আগামী জয়পুরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনীত করবেন ।
তিনি জয়পুরহাট জেলা ছাত্রলীগের সদস্য,জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক,পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পদক,জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। জয়পুরহাট জেলার তৃনমূল আওয়ামী লীগের অন্যতম কান্ডারী এবং সর্বপরি গত ৩০ শে ডিসেম্বর ২০১৫ সালে সকল দলে অংশগ্রহনে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে জয়পুরহাট পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন। বিরোধী দলের দুঃশাসনের সময়েও তিনি রাজপথে মিছিল,দাঙ্গা হাঙ্গামা মামলা মোকাদ্দমা খেয়ে বার বার জেল জরিমানা মধ্যে বছর পার করেছেন।
জয়পুরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে তিনি প্রার্থী হতে ইচ্ছুক। তিনি আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান, দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ হিসাবে ছাত্রজীবন থেকেই কাজ করে আসচ্ছেন। তাই তৃর্নমুল আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা তাকে সমর্থন দেবে বলে তিনি আশাবাদি। জেলার দলিয়ো বিভিন্ন নেতাকর্মীদের সাথে অতীতে ছিলেন, বর্তমানে আছে এবং ভবিষ্যতেও জেলার কল্যাণে কাজ করে যেতে চায়। মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক সমভ্রান্তর পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ও খোঁজ নিয়ে দেখা যায় অধিকাংশ জনগনই এবার সাধারন সম্পাদক নির্বাচনে ত্যাগী সৎ ও যোগ্য নেতা হিসাবে সাবেক ছাত্রনেতা বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক কে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দেখতে চাই।। একজন ব্যক্তি হিসাবে অধিক গুনে গুনান্বিত। ব্যক্তিগত জীবনে সৎ,নির্ভীক,জনদরদী এবং এলাকায় অসহায়,গরীব দুঃখী মানুষের বন্ধু হিসাবে পরিচিত। জানা যায় ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল শ্রেনী পেশার মানুষের কাছে প্রশংসিত একটি নাম মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক। জেলা আওয়ামী লীগের কর্মী হিসাবে তৃর্নমুল আওয়ামী লীগের শান্তি প্রিয় নারী পুরুষের কাছে খুবই আপনজন। একই পদে প্রার্থী প্রত্যাশীতরা হচ্ছেন বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এস এম সোলাইমান আলী,জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক জাকির হোসেন,জেলা আওয়ামী লীগের সহঃসভাপতি গোলাম হক্কানী,সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক জহুরুল ইসলাম,জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এডঃ নৃপেন্দ্রনার্থ মন্ডল,পাঁচবিবি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাবীবুর রহমান হাবীব,জেলা আওয়ামী লীগের নেতা নন্দনাল পার্শী,পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহমুদ হোসেন হিমু প্রমূখ। এখন প্রার্থীরা সকলে তৃর্ণমুল নেতা ও কর্র্মীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরচ্ছেন। আওয়ামী লীগের জরিপের মধ্যে হতে মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক অন্যতম। মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক কে জেলা সাধারন সম্পাদক পদে দিলে আওয়ামী লীগের তৃর্ণমুল নেতাকর্মীরা তাদের অভিভাবক হিসাবে এক বাক্যে মেনে নিয়ে তার পক্ষে কাজ করবে। জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক পদটি খুব গুরুত্ব পূর্ণ। এ জেলায় ৩০টি ইউনিয়ন ৫টি পৌরসভা.৫টি উপজেলা নিয়ে গঠিত। বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে জয়পুরহাট সদর,পাঁচবিবি,কালাই,ক্ষেতলাল,আক্কেলপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাককেই আওয়ামীগের সাধারন সম্পাদক হিসাবে দেখতে চায়। বর্তমান মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নে ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত মধ্যম সারি দেশ হিসাবে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়ার জননেত্রী শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তিনি। সেই সাথে তার প্রত্যাশা আগামী দিতে রাষ্ট্র পরিচালনার দলমত নির্বিশেষে তার অবস্থান থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বি-নির্মানে সদা সর্বদায় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রীর পুত্র ডিজিটাল বাংলাদেশ রুপকার বাস্তবায়নের অগ্রসৈনিক তথ্য প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয় এর ভূয়সী প্রশংসা করেন। প্রতিটি এলাকায় দলমত নির্বিশেষে উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে এটা তার প্রত্যাশা। অদুর ভবিষ্যতে ও আওয়ামী লীগের কর্মীদের পাশে থেকে মৃত্যর আগ মুহুত্ব পর্যন্ত শাসক নয়, জনগনের সেবক হয়ে কাজ করতে চাই বলে জানান তিনি।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2014 radiobogra.net

Design & Developed By: Fendonus Limited