শনিবার, ০৬ Jun ২০২০, ০৫:০০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
লালমনিরহাটে সেতুর অভাবে দুই গ্রামের ১৫ হাজার মানুষের দুর্ভোগ বগুড়ায় ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন আক্রান্ত ৫২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা ‘পপসম্রাট’ আজম খান চলে যাওয়ার ৯ বছর জয়পুরহাটে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা রোগী বারছে দুপচাঁচিয়া পৌরসভার উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচীর উদ্বোধন জয়পুরহাটে বজ্রপাতে এক কৃষকের মৃত্যু জয়পুরহাটে চিনিকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতনের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত এই করোনা মহামারি তে যেভাবে পারিবারিক বন্ধন অটুট রাখবেন। মোহাম্মদ নাসিমের সুস্থ্যতা কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চাইলেন সলঙ্গার যুবলীগ নেতা মোখলেছুর রহমান পাটগ্রামে জোর পূর্বক চাঁদা আদায়ে প্রতিবাদ করায় মারধর, প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ

গত ২০ নভেম্বর ২০২০ তারিখে বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে “বগুড়ার শেরপুরে মার্কেট চালু রাখতে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা চাঁদা দেওয়া নেওয়ার অভিযোগ” সহ বিভিন্ন শিরোনামে মার্কেট ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দদের কার্যক্রম নিয়ে প্রকাশিত সংবাদটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য ব্যবহার ও ভুল বর্ণনার মাধ্যমে ব্যবসায়ীদেরকে সমাজের মানুষ ও প্রশাসন সহ সংবাদকর্মীদের সাথে মনোমালিন্য সৃষ্টির চেষ্টা করেছে প্রতিপক্ষরা। প্রকৃত তথ্য হলো- প্রতিবছর‘ই স্ব-স্ব মার্কেটের নেতৃবৃন্দ মার্কেটের নৈশ্য প্রহরী, ঝারুদারসহ মার্কেটের অতিরিক্ত নজরদারি ও ঈদ বোনাস বাবদ প্রতি দোকান থেকে চাঁদা আদায় করে থাকে। তবে এবছর মহামারি করোনা সংক্রমনের কারনে দীর্ঘদিন দোকান বন্ধ থাকার পর সরকারি সুনির্দিষ্ট নিয়ম-কানুন মেনে মার্কেট খোলা রাখার অনুমতি পেলে সকল মার্কেটের ব্যবসায়ীরা একত্রে মার্কেটের দুই প্রবেশ পথে দুইটি জীবাণুনাশক ঘর (যার মূল্য ষাট হাজার টাকা) তৈরীর জন্য ও প্রতিটি মার্কেটের জন্য পরিধি অনুযায়ী অতিরিক্ত শ্রমিক নিয়োগ এবং জীবানুনাশক মেডিসিন, স্প্রে মেশিন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও অন্যান্য খরচের হিসাব করে ৩০০ টাকা করে প্রতি দোকান থেকে তুলে উপরোক্ত কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়। ক্রেতা-বিক্রেতাদের সংক্রমন প্রতিরোধ ও সতর্ক রাখার চেষ্টায় এই কার্যক্রম চালানো হয়। এখানে কোনো মহলকে চাঁদা প্রদানের জন্য উক্ত টাকা তোলা হয়নি এবং ৯ টি মাকের্টের ৬০০শ দোকানের মধ্যে থেকে মাত্র ৪০০ শো দোকান এই চাঁদার অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এবং ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় হয়েছে যা ব্যবসায়ীদের কাছে সুস্পষ্ট হিসেব দেওয়া হয়েছে। এমতাবস্থায় কতিপয় অসাধু ব্যাক্তি তার ব্যাক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ কল্পে উক্ত ব্যবসায়ী সংগঠনের নামে বিভিন্ন বানোয়াট অসত্য তথ্য ও ভিত্তিহিন অভিযোগ উপস্থাপনের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের সুনাম ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টায় লিপ্ত আছে। আমরা উল্লেখিত অসত্য ভিত্তিহিন সংবাদ প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

নিবেদক-

সভাপতি – আবুল কালাম আজাদ

সা: সম্পাদক – আব্দুর রহমান টুকু

দশ মার্কেট যৌথ ব্যবসায়ী সমিতি, শেরপুর-বগুড়া।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2014 radiobogra.net

Design & Developed By: Fendonus Limited