সোমবার, ০৩ অগাস্ট ২০২০, ১১:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জয়পুরহাট জেলা বাসীকে ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে ভাইস চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঠাকুর জয়পুরহাট পৌর বাসীকে পবিত্র ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে মেয়র মোস্তাক জয়পুরহাট জেলা বাসীকে ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে সংবাদপত্র হর্কাস ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক শহিদুল জয়পুরহাটে করোনাভাইরাস রোগে আক্রন্ত হয়ে জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদকের মৃত্যু চার মাস পর রশিদ হত্যা মামলার রহস্য উম্মোচন সিরাজগঞ্জে বাসচাপায় একজন নিহত; গুরুতর আহত দুই জয়পুরহাট পৌর বাসীকে পবিত্র ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে মেয়র মোস্তাক জয়পুরহাট জেলা বাসীকে ঈদ উল আয্হার শুভেচ্ছা জানিয়েছে ভাইস চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঠাকুর করোনা জয় করলেন ইউএনও মহোদয় ও তার পরিবার তাড়াশে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ
সাংবাদিক লাঞ্ছনার ঘটনায় পুলিশ কমিশনার বরাবর রাজশাহী জেলা বিএমএসএফ’র স্মারকলিপি প্রদান

সাংবাদিক লাঞ্ছনার ঘটনায় পুলিশ কমিশনার বরাবর রাজশাহী জেলা বিএমএসএফ’র স্মারকলিপি প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজশাহীতে কর্মরত এটিএন নিউজের রাজশাহী প্রতিনিধি বুলবুল হাবিবের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরনের ঘটনায় দোষী পুলিশ সদস্যর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আরএমপি পুলিশ কমিশনার বরাবর রাজশাহী জেলা বিএমএসএফ’র স্মারকলিপি প্রদান। উল্লেখ্য, রাজশাহীতে নিউজভিত্তিক বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজের রাজশাহী প্রতিনিধি বুলবুল হাবিবের সাথে মারমুখী ও অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছে এক পুলিশ কনস্টেবল। তার নাম গোলাপ। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার সময় সাংবাদিক বুলবুল হাবিব ব্যক্তিগত কাজে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা গেট দিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে যান। এসময় গেটে দায়িত্বরত পুলিশ কনস্টেবল গোলাপ ক্যাম্পাসের ভেতরে প্রবেশ করতে তাকে বাধা দেয়। এসময় সাংবাদিক বুলবুল হাবিব তার পরিচয় দিলে পুলিশ কনস্টেবল ক্ষিপ্ত হয়ে আজেবাজে শব্দ ব্যবহার করেন এবং মারমুখি আচরণ করেন। পরে পুলিশের কনস্টেবল রিক্সাসহ তাকে ক্যাম্পাসের বাইরে বের করে দেন। এ বিষয়ে রাজশাহীতে কর্মরত এটিএন নিউজের সাংবাদিক বুলবুল হাবিব বলেন, আমি ব্যক্তিগত কাজে ক্যাম্পাসে যাচ্ছিলাম। আমি কাজলা গেট দিয়ে ক্যাম্পাসের ভেতরে প্রবেশের সময় গেটে দায়িত্বে থাকা কনস্টেবল কোন কারণ ছাড়াই আমার সাথে ক্ষিপ্ত আচরণ করেন এবং মারার জন্য তেড়ে আসেন। পরে আমাকে রিক্সাসহ ক্যাম্পাসের বাইরে বের করে দেন। পুলিশ কনস্টেবলটি আমার সাথে এত উদ্ধত আচরণ করেন যে, তার কথার কোনো উত্তর দিলে তিনি আমাকে মারতেন। পরে আমি বিষয়টি নগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরকে জানাই। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) রাজশাহী জেলা শাখা। এ ঘটনায় বিএমএসএফ রাজশাহী সভাপতি আবু কাওসার মাখন ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলাম তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন , এই মহামারি করোনা ভাইরাস এর কারনে নিজের জীবনের ঝুকি নিয়ে সাংবাদিকরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হচ্ছে সাংবাদিকদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নাই কোন কোন সাংবাদিকদের বাড়িতে খাবার নাই। এতো ঝুঁকি নিয়ে সমাজের দ্বায়বধ্যতা থেকে দ্বায়িত্ব পালন করতে গেলে পুলিশের হাতে লাঞ্ছনার শিকার হতে হচ্ছে আবার কারও বিপক্ষে নিউজ হলে হতে হচ্ছে সন্ত্রাসী হামলার শিকার। এই পুলিশ সদস্যর বিচার না হলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলেও হুশিয়ারী দেন।

নগর পুলিশের মুখপাত্র ও উপ-পুলিশ কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি এবং তাৎতক্ষনিকভাবে খোঁজ নিয়েছি। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে ওই কনস্টেবলের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিষয়টি তদন্তের জন্য সহকারি পুলিশ সুপারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2014 radiobogra.net

Design & Developed By: Fendonus Limited